1. admin@atvnews24.com : admin : Ashraf Iqbal
  2. bandpothik683@gmail.com : Asif Badhan : Asif Badhan
  3. smshorifgz@gmail.com : Shorif Gazi : Shorif Gazi
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কামরাঙ্গীরচরের ঝাউলাহাটিতে কামরাঙ্গীরচর থানা কতৃক উঠান বৈঠক সিলেট শাহজালাল মাজারের ওরসে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হস্তান্তর করেছে সিসিক দেশকে শিশুশ্রম মুক্ত করা জন্য সকলকে কাজ করতে হবে : শ্রম প্রতিমন্ত্রী সংবিধানে বলা আছে আমরা জনগণের সেবক : যুগ্মসচিব নাসরিন জাহান এ দেশে এখন কেউ আর নিরাপদ নয়, বিচার চলছে শুধু বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের উপর: জাকির দেশের আগামী প্রজন্মের জন্য মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরতে হবে : বীর মুক্তিযোদ্ধা রুমা চক্রবর্তী সিলেটে কবি নজরুলের ১২৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা আবৃত্তি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা সরকার দলীয়করণের মাধ্যমে ক্রীড়াঙ্গনকে ধ্বংস করে দিয়েছে : আমিনুল হক সংখ্যালঘুদের অধিকার রক্ষায় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন সময়ের দাবী : শামসুল আলম সেলিম শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বন্য হাতি তাড়াতে টর্চ লাইট বিতরণ

আমরা চাই এই গণহত্যা বন্ধ হোক, ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে আছি: শেখ হাসিনা

এটিভি নিউজ ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৫ মার্চ, ২০২৪
  • ৩৯ বার পঠিত

নিউজ ডেস্ক:  ফিলিস্তিনে গণহত্যার নিন্দা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এখনও ফিলিস্তিতে গণহত্যা চলছে, আমরা এটির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আসছি। আমরা চাই এই গণহত্যা বন্ধ হোক। আমরা ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে আছি। আমরা যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই। কারণ যুদ্ধের ভয়াবহতা কেমন আমরা জানি।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সোমবার স্বাধীনতা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

দ্রব্যমূল্য বাড়ার কারণ হিসেবে রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধকে দায়ী করে তিনি বলেন, করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে অর্থনীতিতে আসে চরম ধাক্কা। যার কারণে আমদানি ব্যয় বেড়ে গেছে, দ্রব্যমূল্য বেড়েছে। আমরা এই সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বলেছি। আমাদের সরকারি কর্মকর্তা এবং দলীয় নেতাদের বলেছি, ইফতার পার্টি না করে নিম্নআয়ের মানুষকে সহযোগিতা করতে। ইফতার পার্টি করে খাওয়া বড় কথা না, মানুষকে দেওয়াই বড় কথা। আমরা সেটাই করছি।

তিনি আরও বলেন, ১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগ আমাকে সভাপতি করায় অনেক কষ্ট করে দেশে ফিরে এসেছিলাম। একটাই লক্ষ্য ছিল, বাবার কাছ থেকে তার স্বপ্ন জনতাম বলে সে আলোকে বাংলাদেশকে গড়ে তোলা। আমরা বাংলাদেশের সে হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে পেরেছি। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি, বাংলাদেশে ভাগ্য পরিবর্তনে। এখানে কেউ ভূমিহীন গৃহহীন থাকবে না। সবাই খাদ্য, চিকিৎসা পাবে, সেই ব্যবস্থা করছি।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেনের সঞ্চালনায় এতে মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, বিচারপতি, জাতীয় সংসদ সদস্য, বিদেশি কূটনীতিক, সরকারের পদস্থ সামরিক এবং বেসামরিক কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, রাজনীতিবিদ, কবি-সাহিত্যিক-বুদ্ধিজীবী এবং দেশবরেণ্য ব্যক্তিত্বসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা অংশ নেন। অনুষ্ঠানে সংস্কৃতিতে পুরস্কার পাওয়া মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান প্রতিক্রিয়া জানান।

এবার স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে তিনজন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে একজন, চিকিৎসাবিদ্যায় একজন, সংস্কৃতিতে একজন, ক্রীড়ায় একজন এবং সমাজসেবায় তিনজনকে রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ এ পদক দেওয়া হয়েছে।

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা পুরস্কার পেয়েছেন কাজী আব্দুস সাত্তার, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফ্লাইট সার্জেন্ট মো. ফজলুল হক (মরণোত্তর) ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আবু নঈম মো. নজিব উদ্দীন খাঁন (খুররম) (মরণোত্তর)।

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরও খবর