Main Menu

শরীরে পানিশূন্যতার চার লক্ষণ

 

পানি ছাড়া শরীর অচল। পানি আমাদের শরীরের তরলের ভারসাম্য বজায় রাখে, তাপমাত্রা ঠিকঠাক রাখতে সাহায্য করে। এটি টিস্যু, মেরুদণ্ড ও জয়েন্টকে সুরক্ষা দেয়। পানি হজমে সাহায্য করে, ত্বক ভালো রাখে।

এতগুলো কাজে সমস্যা হতে পারে শুধু পানির অভাবে। পানির অভাব হলে ইলেকট্রোলাইটের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে শরীরের কার্যক্রম ব্যাহত হয়। তাই বিশেজ্ঞদের মতে, একজন সুস্থ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের দিনে অন্তত ১০ থেকে ১২ গ্লাস পানি পান করা প্রয়োজন।

শরীরে পানিশূন্যতা হলে মাথাব্যথা, মুখে দুর্গন্ধসহ বিভিন্ন সমস্যা হয়। শরীরে পানির ঘাটতি হলে বা পানিশূন্যতা হলে বোঝার কিছু উপায় জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি।

১. মাথাব্যথা

পানিশূন্যতা হলে অনেক সময় মাথাব্যথা করে। পানির ঘাটতি হলে মস্তিষ্কে অক্সিজেন ও রক্তের প্রবাহ কমে গিয়ে মাথাব্যথা হতে পারে।

২. মুখে দুর্গন্ধ

মুখে দুর্গন্ধ শরীরে পানিশূন্যতার আরেকটি লক্ষণ। শরীরে পানির অভাব হলে মুখে কম লালা তৈরি হয়। আর এ থেকে মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

৩. অবসন্ন ভাব

পানিশূন্যতার কারণে শরীরে অবসন্ন ভাব হতে পারে। পানিশূন্যতা হলে শরীরে অক্সিজেন পরিবহন কমে যায়। আর এতে শরীর অবসন্ন হয়ে পড়ে।

৪. প্রস্রাবের রঙের পরিবর্তন

পানিশূন্যতা হলে প্রস্রাবের রঙের পরিবর্তন হয়। শরীরে পানি ঠিকঠাক থাকলে সাধারণত প্রস্রাব হালকা হলুদ রঙের হয়। আর পানির ঘাটতি হলে গাঢ় হলুদ রঙের প্রস্রাব হয়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*