Main Menu

ভাষার মাসে ওয়ালটন টিভিতে শতভাগ ক্যাশব্যাকের সুযোগ

 

চলছে ভাষার মাস ফেব্রুয়ারি। এ উপলক্ষে এলইডি ও স্মার্ট টেলিভশনে ‘শতভাগ ক্যাশব্যাক অফার’ দিচ্ছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড ওয়ালটন। এ অফার চলবে পুরো মাস।

চলমান ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ৪-এর আওতায় যেকোনো প্লাজা কিংবা পরিবেশকের শো-রুম থেকে ওয়ালটন টিভি কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাচ্ছেন নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। এরই মাঝে এ অফারের আওতায় টিভি কিনে শতভাগ ক্যাশব্যাক পেয়েছেন অসংখ্য ক্রেতা। এ ছাড়া অনলাইন ক্রেতারা মডেল ভেদে ৫ থেকে ১০ শতাংশ ছাড় ও ফ্রি হোম ডেলিভারি সুবিধা পাচ্ছেন ওয়ালটন ই-প্লাজায়।

শুধু তাই নয়, এসব সুবিধার পাশাপাশি নতুন বছর উপলক্ষে নিজেদের টেলিভিশনের মূল্যও কমিয়েছে ওয়ালটন। ওয়ালটনের ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভি আগের চেয়ে অনেক কম মূল্যে মাত্র ১৭ হাজার ৫০০ টাকায় কিনতে পারছেন ক্রেতারা। ভাষার মাস উপলক্ষে চলতি মাসের ২১ তারিখ পর্যন্ত একই রকম অফার ছিল ওয়ালটন ই-প্লাজাতেও। এখানে ক্রেতারা একই মডেলের টিভি কিনেছেন মাত্র ১৬ হাজার ৬২৫ টাকায়।

এর বাইরে ওয়ালটনের ‘অ্যান্ড্রয়েড-৭’ অপারেটিং সিস্টেমের স্মার্ট টিভির দামও কমানো হয়েছে। ৩২ ইঞ্চি স্মার্ট টিভির দাম ৩০০ টাকা কমিয়ে ২৩ হাজার ৫০০ টাকা করা হয়েছে। ৩৯ ও ৪৩ ইঞ্চি স্মার্ট টিভির দামও কমানো হয়েছে আগের চেয়ে এক হাজার টাকা। টিভির অন্য মডেলগুলোর মধ্যে ৩৯ ইঞ্চির দাম ৩৩ হাজার ৯০০, ৪৩ ইঞ্চি ৩৬ হাজার ৯০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া স্মার্ট টিভির ৪৯ ইঞ্চি ৬৫ হাজার ৯০০ ও ৫৫ ইঞ্চি টিভি ৬৯ হাজার ৯০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

এদিকে নতুন বছরে সম্পূর্ণ ইএলইডি ব্যাকলাইটসমৃদ্ধ মেটালিক বডি, ডলবি ডিজিটাল সাউন্ড, হাই কন্ট্রাস্ট ও স্লিম ডিজাইনের ৪৩ ইঞ্চির নতুন মডেলের স্মার্ট টিভি বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। এর দাম ধরা হয়েছে ৪৪ হাজার ৯০০ টাকা। একই সাইজের আগামী প্রজম্মের কোয়ান্টাম ডট প্লাস টেকনোলজির সর্বোচ্চ কালার প্রদর্শন ক্ষমতাসম্পন্ন স্পেকট্রা কিউ স্মার্ট টিভির নতুন মডেলও বাজারে আনা হয়েছে। এর দাম ৬৫ হাজার ৯০০ টাকা। এসব স্মার্ট টিভির প্রতিটিতে রয়েছে ১ জিবি র‍্যাম ও ৮ জিবি বিল্ট-ইন মেমোরি। ওয়ালটন ই-প্লাজা থেকে স্মার্ট টিভি কেনার ক্ষেত্রে অনলাইনের ক্রেতারা ৫৫ ও ৪৯ ইঞ্চিতে আট শতাংশ এবং ৩২, ৩৯ ও ৪৩ ইঞ্চিতে পাঁচ শতাংশ ছাড় পাচ্ছেন।

অন্যদিকে বর্তমানে স্থানীয় বাজারে ব্লুটুথ স্পিকারযুক্ত ওয়ালটনের ২০ ইঞ্চি বুম বক্স টিভির দাম ১২ হাজার ৪০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। দেশীয় প্রতিষ্ঠানটি ১২ হাজার ৯৯০ টাকায় ২৪ ইঞ্চি, ১৬ হাজার ৯০০ টাকায় ২৮ ইঞ্চি, ২৮ হাজার ৯০০ টাকায় ৩৯ ইঞ্চি, ৩৩ হাজার ৯০০ টাকায় ৪৩ ইঞ্চি, ৪৯ হাজার ৯০০ টাকায় ৪৯ ইঞ্চি ও ৫৯ হাজার ৯০০ টাকায় ৫৫ ইঞ্চি এলইডি টিভি সরবরাহ করছে। ই-প্লাজার ক্রেতারা ৫৫ ও ৪৯ ইঞ্চিতে ১০ শতাংশ, ৪৩ ও ৩৯ ইঞ্চিতে আট শতাংশ এবং অন্যান্য সাইজের টিভিতে মূল্য ছাড় পাচ্ছেন পাঁচ শতাংশ।

বাজারে ওয়ালটনের এসব টিভিতে রয়েছে ছয় মাসের রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি সুবিধা। টিভির প্যানেল ও খুচরা যন্ত্রাংশে দুই বছরের ওয়ারেন্টিসহ পাঁচ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সুবিধা। এ ছাড়া ক্রেতাদের দেওয়া হচ্ছে আইএসও সনদপ্রাপ্ত সার্ভিস ম্যানেজমেন্টের আওতায় দেশব্যাপী বিস্তৃত সার্ভিস পয়েন্টের মাধ্যমে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চয়তা।

ওয়ালটন টেলিভিশন সেলস বিভাগের প্রধান মারুফ হাসান জানান, স্থানীয় বাজারে ওয়ালটনের টিভি গ্রাহকপ্রিয়তার শীর্ষে। তাঁর মতে- অত্যাধুনিক প্রযুক্তি, উন্নত ফিচার, উচ্চ গুণগতমান, আকর্ষণীয় আউটলুক, সাশ্রয়ী মূল্য, দেশের সর্বত্র সহজলভ্য এবং দ্রুত সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চিয়তা থাকাতেই বাড়ছে ওয়ালটন টিভির বিক্রি। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালে আগের বছরের চেয়ে প্রায় ২৫ শতাংশ বেশি টিভি বিক্রি হয়েছে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও স্লিম ডিজাইনের আরো নতুন নতুন মডেলের টিভি ওয়ালটন বাজারে ছাড়ছে বলেও জানান তিনি।

বড় পর্দায় ইউটিউব, ফেসবুক, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, গেমিং, মোবাইলে রক্ষিত অডিও, ভিডিও, ইমেজ, লার্জ ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল, হাই কন্ট্রাস্ট পিকচার, ডলবি ডিজিটাল সাউন্ড, নয়েজ রিডাকশন ও আল্ট্রা স্লিম ডিজাইনের হওয়ায় বাজারে ওয়ালটন স্মার্ট টিভির গ্রাহক চাহিদা দিনে দিনে বাড়ছে। ক্রমবর্ধমান গ্রাহকচাহিদা পূরণে ওয়ালটন নিজস্ব কারখানায় আগের চেয়ে স্মার্ট টিভির উৎপাদন বাড়িয়েছে।

ওয়ালটন টেলিভিশন বিভাগের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, দেশেই নিজস্ব তত্ত্বাবধানে কঠোরভাবে মান নিয়ন্ত্রণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তৈরি হচ্ছে ওয়ালটন টিভি। এ টিভি এরই মধ্যে অর্জন করেছে ব্যুরো অব ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডস (বিআইএস) ও স্ট্যান্ডার্ডস অরগানাইজেশন অব নাইজেরিয়া প্রোডাক্ট কনফরমিটি অ্যাসেসমেন্ট প্রগ্রামের টেস্টিং সার্টিফিকেট। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগে ওয়ালটন টিভি বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হচ্ছে।

মোস্তফা নাহিদ আরো জানান, আইএসও ক্লাস সেভেন ডাস্ট ফ্রি ক্লিন রুমে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এইচএডিএস (হায়্যার অ্যাডভান্সড ডাইনামিক সুইচিং) এবং আইপিএস (ইন প্ল্যান সুইচিং) প্যানেল তৈরি করছে ওয়ালটন। যা প্যানেলের গুণগত মান ও দীর্ঘস্থায়ীত্ব নিশ্চিত করে। এর ফলে দর্শকরা পান লার্জ ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল ও হাই কন্ট্রাস্ট পিকচার। এসবের বাইরেও ওয়ালটন টিভি ব্যাপকভাবে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী বলে দাবি করেন তিনি।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*