Main Menu

টইটং – বনকানন -মধুখালী সড়কের বেহাল দশা!

সাইফুল ইসলাম বাবুলঃ

কক্সবাজারে পেকুয়া উপজেলার টইটং হাজী বাজার আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে বনকানন, জালালী মুড়া,মধুখালীসহ ৫ টি গ্রামের ইউনিয়নের অভ্যন্তরে প্রতিদিন কয়েক হাজার লোক এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করলে ও দীর্ঘ বছর ধরে এই সড়কটির বেহাল দশা। পাহাড়ে যাওয়ার অতি গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি।

স্বাধীনতার পর থেকে এই পর্যন্ত কোন জনপ্রতিনিধি সড়কটির প্রয়োজনীয় সংস্কার করেনি। প্রতিদিন ৪-৫ হাজার মানুষের চলাচল এই রাস্তা দিয়ে। আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে জানআলী মুড়া, দরগা মুড়া, বনকানন, মধুখালী, কাটাপাহাড় এলাকায় যেতে হলে এই সড়কটি দিয়ে যেতে হয়। শুষ্ক মৌসুমে কিছুটা জনদূরভোগ কমলেও বর্ষা আসলে বেড়ে যায় মানুয়ের দুর্ভোগ।

বেশি কষ্ট হয় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী সহ মহিলাদের ফলে ঘটছে নানা ধরণের দুর্ঘটনা। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন উন্নয়ন হলেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি এই এলাকায়। বিভিন্নজন বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। নামমাত্র কিছু মাটি দিয়ে নিজের দায়িত্ব শেষ করেছেন।

সরোজমিনে, মূল সড়ক থেকে সামান্য পরিমান ইট বিছানো হলেও বাকি রাস্তা এখনো কাঁচা। তৈরি হয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত। সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে নাকাল অবস্থা হয়। প্রতিদিন এই রাস্তায় হেলেদুলে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন। ছোটবড় দুর্ঘটনা এই রাস্তায় নিত্যদিনের ব্যাপার, দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহনগুলো ধীরে চলতে বাধ্য হচ্ছে। এ সড়কে নিত্যদিন যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

জানতে চাইলে স্থানীয় মেম্বার বলেন, তার সাধ্যমত চেষ্টা করবেন এই সড়কটি সংস্কার করতে।

টইটং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান জাহেদ চৌধুরী বলেন, এই রাস্তাটি সংস্কার হওয়া খুব জরুরী, বাজেট হলে তিনি প্রথমে এই সড়কটি সংস্কার করবেন বলে আশ্বাস দেন।

স্থানীয় সংবাদ কর্মী রেজাউল করিম বলেন, বর্তমান সরকার দেশের বিভিন্ন এলাকায় উন্নয়ন অব্যাহত রাখলেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের এই এলাকায়। সরকার ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে এলাকাবসীর দাবী দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করে মানুষের দুর্ভোগ যেন লাঘব করে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*